মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলায় অবস্থিত একটি অন্যতম আবাসিক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়। নোয়াখালী জেলার সোনাপুরে ১০১ একর জায়গা ওপর বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত। এটি বাংলাদেশের ২৭ তম পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এবং ৫ম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে ২০০৬ সাল থেকে। শুরুতে এই বিশ্ববিদ্যালয় ৪টি বিভাগ নিয়ে যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে এখানে দশটি বিভাগ রয়েছে।[১] এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১২ সাল পর্যন্ত ৭টি ব্যাচে শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে। বর্তমানে এখানে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে পাঠ দান করা হয়। ছাত্র-ছাত্রীর অনুপাত প্রায় ৬৫:৩৫। সবগুলো বিভাগে প্রায় ৫০ জন শিক্ষক/শিক্ষিকা আছেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়টিকে উপকূলীয় বিশ্ববিদ্যালয় (Coastal University) ও বলা হয়। অবস্থান নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় নোয়াখালী জেলা শহর থেকে আট কিলোমিটার দক্ষিণে সোনাপুর-চরজব্বার সড়কের পশ্চিম পাশে একশ একান্ন একর জায়গা জুড়ে অবস্থিত। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টি নির্মাণাধীন অবস্থায় আছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু অংশে ভূমি উন্নয়ন সম্পন্ন হয়েছে এবং সেখানে একাডেমিক ভবন ও শিক্ষক এবং ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য হল এবং ডর্মিটরী নির্মিত হয়েছে। ইতিহাস ২০০১ সালে বাংলাদেশের বৃহত্তর ১১টি জেলায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের স্বিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এই সিদ্ধান্তের আলোকে ২০০৩ সালের ২৫ আগস্ট প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাক্ট-২০০১ কার্যকর হয়। ২০০৫ সালের ২৪ অক্টোবর আনুষ্ঠানিকভাবে এর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ২০০৬ সালের ৬ এপ্রিল তৎকালিন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া এ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। ২৩ জুন ২০০৬ ইং প্রথম একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয়। শুরুতে এই বিশ্ববিদ্যালয় ৪টি বিভাগ নিয়ে এর কার্যক্রম আরম্ভ করে। এগুলো হলো: কম্পিউটার সাইন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স, ফার্মেসি, এপ্লায়েড কেমিষ্ট্রি এন্ড কেমিক্যাল টেকনোলজি। ২০১০ সালে পঞ্চম বিভাগ হিসাবে মাইক্রোবায়লজি বিভাগ প্রতিষ্ঠা করা হয়। ২০১১ সালে গণিত ও ইংরেজি বিভাগ এবং ২০১২ সালে আরো তিনটি নতুন বিভাগ- ফুড টেকনোলজি এন্ড নিউট্রিশন সায়েন্স, এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স এন্ড হ্যাজার্ড স্টাডিস, বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন সহ বর্তমানে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০ টি বিভাগ চালু আছে। নোবিপ্রবি আরও ৭টি নতুন বিভাগ খোলার অনুমতি পেয়েছে, অচিরেই সেইসব বিভাগের কার্যক্রম শুরু করবার আশা করা হচ্ছে। ২০১১ সাল থেকে এখানে চারটি বিভাগে মাস্টার্স কোর্স চালু হয়েছে। অনুষদ সমূহ ১। লাইফ সায়েন্স(ফার্মেসি, ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স, মাইক্রোবায়োলজী) ২। ইঞ্জিনিয়ারিং(কম্পিউটার সাইন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, এপ্লায়েড কেমিষ্ট্রি এন্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং) বিভিন্ন বিভাগ সমূহ কম্পিউটার সাইন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা লগ্ন ২০০৬ সালে এখানে কম্পিউটার সাইন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ খোলা হয়। সহকারী অধ্যাপক জনাব বেলাল হোসেন এই বিভাগের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব্‌ব পালন করছেন । ২০১১ সাল থেকে এখানে মাস্টার্স কোর্স চালু হয়। -এই বিভাগের ল্যাব সুবিধা সমূহ নিন্মরূপ - • প্রোগ্রামিং এন্ড ডাটা স্ট্রাকচার ল্যাব মোট কম্পিউটার সংখ্যা: ৫০; ল্যান এবং ইন্টারনেট: আছে; ওপারেটিং সিস্টেম:উইন্ডোস এক্সপি+উবুন্টু ৭.১০ • ডিজিটাল সিগনাল প্রসেসিং এন্ড ওপারেটিং সিস্টেম ল্যাব মোট কম্পিউটার: ২০; ল্যান এবং ইন্টারনেট: আছে; ওপারেটিং সিস্টেম:উইন্ডোস এক্সপি • ইলেক্ট্রিকাল এন্ড ইলেক্ট্রনিকস্ ল্যাব যন্ত্রপাতি: ওসিলোস্কোপ এবং অন্যান্য আরো বিভিন্ন ধরনের ইলেক্ট্রিক যন্ত্রপাতি রয়েছে • ডাটা কমিউনিকেশন ল্যাব • মাইক্রোওয়েভ ও স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন ল্যাব ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা লগ্ন ২০০৬ সাল থেকে এই বিভাগের কার্যক্রম চালু আছে। এই বিভাগের বর্তমান চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক রাকেবুল ইসলাম। ২০১১ সাল থেকে এখানে মাস্টার্স কোর্স চালু হয়। -ল্যাব সুবিধা সমূহ- • বায়োকেমিস্ট্রি ল্যাব • ফিশারিজ ল্যাব • মাইক্রোবায়োলজি ল্যাব • কেমিস্ট্রি ল্যাব • এনভায়রনমেন্টাল ল্যাব ফার্মেসি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা লগ্ন ২০০৬ সালে এখানে ফার্মেসি বিভাগ খোলা হয়। ফার্মেসি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান জাকির হোসেন। সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ সেলিম হোসেন বিভাগটির বর্তমান চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বিভাগের মোট ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা ১৮৫ জন। এর মধ্যে ৬৫% ছাত্র এবং ৩৫% ছাত্রী। বর্তমানে ফার্মেসি বিভাগে ১০ জন শিক্ষক রয়েছেন, এদের মধ্যে ৫জন সহকারী অধ্যাপক রয়েছেন। ২০১১ সাল থেকে ২টি বিষয়ে এখানে মাস্টার্স কোর্স চালু হয়। বিষয় দুটি হলোঃ ক্লিনিক্যাল ফার্মেসি এন্ড ফার্মাকোলজী এবং ফার্মাসিউটিকাল টেকনোলজি। --ফার্মেসি বিভাগের ল্যাব সুবিধা সমূহ নিম্নরূপ-- • অর্গানিক ল্যাব • ইনর্গানিক ল্যাব • ফিজিকাল ফার্মাসি ল্যাব • ফিজিওলজি ল্যাব • মাইক্রোবায়োলজি ল্যাব • ফার্মাকোলজি ল্যাব • ফার্মাসিউটিকাল টেকনোলজি ল্যাব • ফার্মাসিউটিকাল এনালাইসিস এন্ড কোয়ালিটি কন্ট্রোল ল্যাব • ফার্মাসিউটিকস্ ল্যাব এপ্লায়েড কেমিষ্ট্রি এন্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ ইউসুফ মিয়্যা। ২০১১ সাল থেকে এখানে মাস্টার্স কোর্স চালু হয়। -ল্যাব সুবিধা সমূহ- • অর্গানিক ল্যাব • ইনর্গানিক ল্যাব • জেনারেল কেমিস্ট্রি ল্যাব • কেমিক্যাল টেকনোলজি ল্যাব • কেমিক্যাল ইন্জিনিয়ারিং ল্যাব • ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রোডাক্ট এনালাইসিস ল্যাব • এপ্লায়েড কেমিস্ট্রি ল্যাব মাইক্রোবায়লজি গণিত ইংরেজি ফুড টেকনোলজি এন্ড নিউট্রিশন সায়েন্স এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স এন্ড হ্যাজার্ড স্টাডিস বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন আবাসিক হল সমূহ • ভাষা শহীদ আব্দুস সালাম হল • হযরত বিবি খাদিজা হল • ডরমিটরী ২টি • টিচার্স কোয়ার্টার নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যাল অফিসিয়াল ওয়েবসাইট • www.nstu.edu.bd • www.cste.nstu.edu.bd